৩৯ স্ত্রী, ৯৪ সন্তান ও ৩৩ নাতি-নাতনী নিয়ে একত্রে থাকেন তিনি

ভারতের মিজোরামের এক সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন জিওনা। ১৯৪৫ সালে যখন তার মাত্র ১৭ বছর বয়স, তখন প্রথমবার বিয়ে হয় তার। তবে একটা বিয়ে করেই তিনি সন্তুষ্ট থাকতে পারেননি। এরপর বহুবার বিয়ে হয়েছে তার।

এইভাবে মোট ৩৯ জন নারীকে বিয়ে করেন তিনি।বিশ্বে এত জন স্ত্রী কারোর নেই। এক বছরে তিনি ১০টি বিয়ে করে রে’কর্ড গড়েছেন। প্রত্যেক স্ত্রী এখনো তার সঙ্গেই থাকেন।

গত ১৩ মার্চ লন্ডন ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে যে সংবাদ প্র’কাশিত হয়, তাতে জানা যায়, পৃথিবীর সবথেকে বড় পরিবারের প্রধান হলেন জিওনা চানা । তার ৩৯ জন স্ত্রী, ৯৪ জন স’ন্তান, ১৪ জন পুত্রবধূ এবং ৩৩ জন নাতি-নাতনি রয়েছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, জিওনার বাড়িটি তার সংসারের মতোই বিশাল বড়। তার বাড়িতে ১০০টি ঘর আছে সেখানে তিনি সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে থাকেন। তার ঘরের পাশাপাশি তার স্ত্রীদের ঘর। বিয়ের দিন অনুযায়ী তারা দূরে বা কাছে থাকে। অর্থাৎ যাকে শে’ষে বিয়ে করেছেন তিনি থাকেন সবথেকে কাছে আবার যাকে প্রথমে বিয়ে করেছেন, তিনি থাকেন সব থেকে দূরে । তবে সবার জিওনার ঘরে প্রবেশ করার অ’নুমতি আছে।

জিওনার বাড়িতে তার সব ছেলেরাই নিজেদের স্ত্রী নিয়ে থাকেন। তার পরিবারে সবার আলাদা ঘর থাকলেও রান্নাঘর কিন্তু একটাই। অর্থাৎ ওই পরিবারের রান্না একসঙ্গেই হয়। খাবার জন্য তাদের প্রতিদিন ১০০ কেজি চাল আর ৭০ কেজির বেশি আলু রান্না হয়। আর মাংস রান্না হলে তো কথাই নেই। মোটামুটি ৬০ কেজি আলু এবং ৪০টি মুরগি লাগে গোটা পরিবারের। জিওনার ছেলেরা সবাই চাষের কাজ আর পশু পালন করে থাকেন ৷

পৃথিবীর সব থেকে বড় পরিবারের প্রধান হয়েও জিওনা এখানে থামতে চান না। বিশ্বের সবথেকে বড় পরিবারের কর্তা হয়ে তিনি গ’র্বিত। তিনি আরও বাড়াতে চান তার পরিবার। এদিকে পরিবারের ছোট ছোট সদস্যদের জন্যও তিনি স্কুল বানিয়েছেন সেখানে তার ছে’লেমে’য়ে এবং নাতি-নাতনিরা পড়াশোনা করেছে এবং করছে স্কুলটি সরকারের কিছু অনুদান পায়। আগেকার দিনের রাজা বাদশাদের মত জিওনাও তার এতগুলি স্ত্রী ও স’ন্তান-স’ন্ততি নিয়ে সুখে-শা’ন্তিতে একসঙ্গে বাস করছেন। নিউজ১৮।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *