অদক্ষ ভিসির কারণে বুয়েটকে নষ্ট হতে দেব না: বুয়েটের ৩০০ শিক্ষক

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষক সমিতির সভাপতি একে এম মাসুদ বলেছেন, একজন অদক্ষ ভিসির কারণে আমাদের প্রাণপ্রিয় প্রতিষ্ঠানকে নষ্ট হতে দেব না।

বুধবার (৯ অক্টোবর) আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে চলমান পরিস্থিতিতে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় বৈঠকে বসেন বুয়েট শিক্ষক সমিতির তিনশ শিক্ষক। বৈঠক শেষে দুপুর আড়াইটায় শিক্ষার্থীদের সামনে এসে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা তোমাদের নিরাপত্তা দিতে পারিনি। আমরা অপরাধী। বুয়েট শিক্ষক সমাজ আবরারের বাবা-মার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। তবে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বুয়েট থেকে আজীবন বহিষ্কার করতে যাচ্ছি আমরা।

তিনি বলেন, তিনশ শিক্ষকের সমন্বয়ে মিটিং হয়েছে। সে মিটিংয়ে নেয়া সিদ্ধান্ত আমরা লিখিত আকারে সুপারিশ করবো। এছাড়া বুয়েটের স্বার্থে কোনো শিক্ষক ও শিক্ষার্থী পরোক্ষ রাজনীতিতে জড়িত হবে না বলেও বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ সময় ভিসির পদত্যাগসহ আট দফা তুলে ধরেন তিনি।

শিক্ষকদের ৮ দফা দাবি

১. দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

২. হত্যাকারীদের বুয়েট থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে।

৩. ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এ শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

৪. বুয়েটের সব আবাসিক হল থেকে বহিরাগতদের সরিয়ে হলের সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে।

৫. বুয়েটের শিক্ষক–শিক্ষার্থীদের পরোক্ষ রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে।

৬. র‌্যাগিং ও নির্যাতন বন্ধে আগের সব র‌্যাগিং ও নির্যাতনের সুষ্ঠু তদন্ত এবং শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

৭. বুয়েটের ওয়েবসাইটে শিক্ষার্থীদের অভিযোগ করার ব্যবস্থা থাকতে হবে এবং

৮. ভিসির অদক্ষতা ও নির্লিপ্ততায় আমরা ক্ষুব্ধ। তিনি প্রশাসনিক কাজে পূর্ণ সহায়তা দেননি বলেই এ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। আবরার হত্যার দায় তার। এ দায় নিয়ে বুয়েট থেকে তাকে পদত্যাগ করতে হবে। স্বেচ্ছায় তিনি পদত্যাগ না করলে অপসারণের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানানো হয়।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *