নবজাতক ও মাকে অপারেশন থিয়েটারে রেখে পালালেন চিকিৎসক

নরসিংদীর একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুল চিকিৎসায় এক নবজা’তকের মৃ’ত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ডায়াগনস্টিক সেন্টারের এক পরিচালকসহ দুইজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

আজ সোমবার (২৬ আগস্ট) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার ইফা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে।আট’ককৃতরা হলেন- ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালক দিদারুল কবির পাঠান ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কর্মচারী লিটন মিয়া।মৃ’ত নবজা’তক শহরের ব্রাহ্মণপাড়া এলাকার আশরাফুল আলম রিপনের ছেলে।

এ ব্যাপারে রিপন বলেন, সোমবার বিকেলে প্রসব ব্যথা উঠলে আমার স্ত্রী রুপালীকে ইফা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করি। পরে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের চিকিৎসক অসীম কুমার ভৌমিক সিজারিয়ানের মাধ্যমে শিশুর প্রসব করান।

কিন্তু অপারেশন থিয়েটার থেকে নবজাতকের নাভিতে কর্ড না লাগিয়ে বের করে ফেলা হয়। একই সঙ্গে প্রসবের পর নবজা’তককে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হয়নি। বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে তারা কর্ড লাগানোর জন্য অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যান। এরপর থেকে চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, এ অবস্থায় অপারেশন থিয়েটারে গিয়ে দেখা যায় নবজাতক আর তার মা টেবিলে পড়ে আছে। চিকিৎসকরা পালিয়ে গেছেন। পরে নবজা’তককে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও সঠিক বিচার চাই।

নরসিংদী সদর পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বলেন, আমরা বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় দুইজনকে আ’টক করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের লোকজন থানায় মামলা দায়ের করলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *