রিজওয়ানের তাণ্ডবে হোয়াইটওয়াশ এড়াল পাকিস্তান

ডেবন কনওয়ের ফিফটিতে লড়াইয়ের পূঁজি পেয়েছিল নিউজিল্যান্ড। রান তাড়ায় নেমে সেই চ্যালেঞ্জের দারুণ জবাব আসে পাকিস্তানের কিপার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ানের ব্যাটে। তার ঝড়ে শেষ টি-টোয়েন্টি জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়িয়েছে পাকিস্তান।

মঙ্গলবার নেপিয়ারে টস হেরে ব্যাট করতে গিয়ে ৭ উইকেটে ১৭৩ রান করে নিউজিল্যান্ড। রিজওয়ানের ৫৯ বলে ৮৯ রানের বিস্ফোরক ইনিংসে সেই রান পেরিয়ে ৪ উইকেটে জিতে সান্ত্বনা পেয়েছে পাকিস্তান। প্রথম দুই টি-টোয়েন্টি জিতে আগেই সিরিজ নিশ্চিত করেছিল নিউজিল্যান্ড।

অবশ্য শেষ দুই ওভারের নাটকে ম্যাচ হাতছাড়া হওয়ার শঙ্কাও জেগেছিল তাদের। শেষ ১২ বলে লাগত কেবল ১২ রান। টিম সাউদির ১৯তম ওভারে প্রথম দুই বলে দুই উইকেট পড়ে যায় পাকিস্তানের। ওই ওভার থেকে ইফতেখার আহমেদ ৭ রান নিলে শেষ ওভারে দরকার ছিল কেবল ৫ রান।

কাইল জেমিসনের বলে শেষ ওভারে আউট হয়ে যান ৮৯ করা রিজওয়ানও। তবে স্ট্রাইক পেয়ে ছক্কায় খেলা শেষ করে দেন ইফতেখার।

চ্যালেঞ্জিং রান তাড়ায় হায়দার আলিকে নিয়ে দারুণ শুরু আনেন রিজওয়ান। পাওয়ার প্লে কাজে লাগিয়ে দ্রুত রান বাড়ান তারা। দলের ৪০ রানে ৯ বলে ১১ করা হায়দারের আউটে ভাঙ্গে জুটি।

দ্বিতীয় উইকেটে খেলার মোড় ঘুরিয়ে দেওয়ার মতো জুটি পায় সফরকারীরা। ছন্দে থাকা অভিজ্ঞ মোহাম্মদ হাফিজ এদিনও পান তাল। রিজওয়ান-হাফিজ জুটিতে আসে ৭২ রান। ২৯ বলে ৪১ করা হাফিজ ক্যাচ দেন স্কট কুগলেইজের বলে।

এরপর খুশদিল শাহকে এক পাশে রেখে ছুটতে থাকে রিজওয়ানের ব্যাট। ১৪১ রানে গিয়ে থামেন খুশদিলও। ১০ বলে ১৩ করা এই ব্যাটসম্যান ক্যাচ উঠান জিমি নিশামের বলে।

তবে রিজওয়ানকে থামাতে পারছিল না কিউইরা। এক পাশের ছোট বাউন্ডারির সুবিধা নিয়ে ম্যাচ দ্রুত পাকিস্তানের দিকে নিতে থাকেন তিনি। ৮৯ রানের ইনিংসে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান মেরেছেন ১০ চার আর ৩ ছক্কা।

এর আগে মার্টিন গাপটিল, টিম সেইফার্টের শুরুটা ভেস্তে যায় মাঝের ওভারে দ্রুত উইকেট পতনে। ৪০ রানের উদ্বোধনী জুটির পর ৫৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে নিউজিল্যান্ড। আগের ম্যাচে ফিফটি করে সেইফার্ট করেন ২০ বলে ৩৫, কেইন উইলিয়ামসন ফেরেন মাত্র ১ রান করে। দলের বিপর্যয়ে নেমে কনওয়ে ৪৫ বলে ৬৫ করে আউট হন একদম শেষ ওভারে গিয়ে। ২০ বলে ৩৫ করে গ্ল্যান ফিলিপস আর স্কট কুগলেইঞ্জ ৬ বলে ১৪ করে রান বাড়ানোর কাজটা করে গেছেন। তবে নেপিয়ারের ছোট বাউন্ডারিতে ওই রান যে যথেষ্ট না একাই বুঝিয়ে দিয়েছেন রিজওয়ান।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *